Category: মোহন

মোহন মন্ত্র

মোহন মন্ত্রঃ শোণিতেন দুষ্টস্য নাম ভুর্জপত্রে লিখিত্বা মধূ মধ্যে স্থাপয়েৎ। দুষ্টমোহমাপ্নোতি। সর্ব্বদুষ্টান্‌ মোহয়তি।। রক্তের দ্বারা ভুর্জপত্রে দুষ্টব্যক্তির নাম লিখে মধুমধ্যে স্থাপন করবে। তাহাতে দুষ্টব্যক্তি মোহিত হবে।

সমগ্র জগৎ মোহিত করা

সমগ্র জগৎ মোহিত করাঃ বিল্বপত্র ছায়ায় শুকাইয়া লইতে হইবে, তৎপরে ঐ পত্র গুঁড়া করিয়া কপিলা গাইয়ের দুধের সহিত মিশাইয়া বড়ি প্রস্তুত করিতে হইবে। পরে নিজের গালে ঐ বড়ি ঘষিয়া তিলক অঙ্কন করিলে সমগ্র জগৎ মোহিত হইবে।

ত্রিলোক মোহিত করা

ত্রিলোক মোহিত করাঃ মনঃশীলা, হরিতাল, কৃষ্ণ ধুতুরার ফুল ও মৌমাছির পাখা সমানভাগে লইয়া বড়ি প্রস্তুত করিয়া ঐ বড়ি দ্বারা নিজের কপালে তিলক অঙ্কন করিলে ত্রিলোক মোহিত হইবে।

মানুষের সামনে দাঁড়িয়ে মানুষকে মোহিত করা

মানুষের সামনে দাঁড়িয়ে মানুষকে মোহিত করাঃ সিন্দুর, কুঙ্কুম ও গোরোচনা আমলকীর রসে পেষণ করিয়া কপালে তিলক প্রদান করিয়া কাহারও সম্মুখে দাঁড়াইলে সে মোহিত হইবে। সকল লোককেই ইহা দ্বারা মোহিত করা যায়।

ত্রিভূবনের সকলকেই মোহিত করা

ত্রিভূবনের সকলকেই মোহিত করাঃ ভৃঙ্গরাজ, কেশুত্তে, লজ্জাবতীলতা ও বেড়েলা একত্রে পিষিয়া তদ্‌দ্বারা তিলক ধারণ করিলে ত্রিভুবন মোহিত হইবে।

মোহন কাজল

মোহন কাজলঃ নিজ চক্ষে তিতা লাইবীজের তৈলের প্রদীপ-শিখায় কজ্জল প্রস্তুত করিয়া লাগাইলে সকল ব্যক্তিকেই মোহিত করা যায়।

যেকোন লোককেই মোহিত করা

যেকোন লোককেই মোহিত করাঃ কলার রসে হরিতাল, অশ্বগন্ধা ও গোরোচনা পেষণ করিয়া যদি নিজ কপালে তিলক প্রদান করা যায় তাহা হইলে সমস্ত লোককেই মোহিত করা যায়।

জগৎ মোহিত করার উপায়

জগৎ মোহিত করার উপায়ঃ শ্বেত চন্দন ও শ্বেত আকন্দের মূল একত্রে পিষিয়া তদ্দারা তিলক ধারণ করিলে সমস্ত জগৎকে মোহিত করা যায়।

যে কোন ব্যক্তি মোহিত করা

যে কোন ব্যক্তি মোহিত করাঃ সিন্দুর ও শ্বেত আকন্দের মূল কলার রসে পেষণ করিয়া নিজের কপালে তিলক প্রদান করিলে যে কোন ব্যক্তি মোহিত হইবে, ইহাতে কোন সন্দেহ নাই।

error: Content is protected !!