Category: মারন

মামলা বা মোকাদ্দমায় জয়লাভের তদবীর

মামলা বা মোকাদ্দমায় জয়লাভের তদবীরঃ “ইয়া বাদিয়াল আজায়িবি বিল খাইরি ইয়া বাদিউ” কোন মোকদ্দমায় যদি সত্য পক্ষের বরন করিবার সম্ভবনা হয় তভন উপরোক্ত দোয়াটি  প্রত্যহ বারোশত বার করিয়া একাধারে বার দিন পর্যন্ত পাঠ করিবে, ইহাতে আল্লাহর ফযলে সত্যপক্ষ জয়লাভ করিতে পারিবে।

জেল হইতে মুক্তিলাভের তদবীর

জেলখানা বা কারাগার হইতে মুক্তিলাভের তদবীর দিন রাত্র চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে এক হাজার বার করিয়া বিসমিল্লাহ পাঠ করতঃ দেহে দম করিলে শীঘ্রই জেল হইতে মুক্তিলাভ করিবে। ক) বন্দী ব্যক্তি একশত একুশবার বিসমিল্লাহির বরকতে সে মুক্তি লাভ করিবে। খ) সুরা ইউসুফ চল্লিশ দিন পর্যন্ত নিয়মিতরুপে পাঠ করিলে জেল হইতে মুক্তি পাওয়া...

যুদ্ধে সুনিশ্চিত জয়লাভের তদবীর

যুদ্ধে সুনিশ্চিত জয়লাভের তদবীর যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রুবাহিনী সম্মুখে উপস্থিত হইলে তাহাদের দিকে একটি ফুঁক দিবে। ইন্শা-আল্লাহ শত্রুবাহিনী পর্য্যদস্ত হইয়া যাইবে।

শত্রুর সাথে যুদ্ধে জয়লাভের তদবীরঃ

শত্রুর সাথে যুদ্ধে জয়লাভের তদবীর সাতশত সাতাশিবার বিসমিল্লাহ পাঠ করিয়া পাক পানিতে দম করতঃ উহা পান করিয়া এবং সর্বশরীরে ছিটাইয়া দিয়া শত্রুর সাথে ঝগরা বিবাদ বা যুদ্ধে অবর্তীণ হইলে আল্লাহর রহমতে জয়লাভ সুনিশ্চিত।  

 দুশমন ধ্বংস করার তদবীর

 দুশমন ধ্বংস করার তদবীরঃ শত্রু ধ্বংস করার জন্য নিম্নক্ত খোদা তায়ালার পবিত্র নামটি খোলা আকাসের নিচে খালি মাথায় বসে ১,২৫,০০০ ( এক লক্ষ পচিঁশ হাজার) বার করে এক সপ্তাহ প্রতিদিন শত্রুর বাড়ীর দিকে মুখ করে পড়তে থাকবে। ইনশা আল্লাহ এক সপ্তাহের মধ্যেই শত্রু ধ্বংস হয়ে যাবে। কালামঃ ”ইয়া মুযিল্লু”

error: Content is protected !!