Category: পশুপাখি সর্ম্পকীয়

সর্বপ্রকার বিষদোষ নাশ

সর্বপ্রকার বিষদোষ নাশঃ ওঁ আং হ্রী স্ত্রীঘোনস মহেশ্বরেশ্চাঞ্চল চল। লোলাং রাসাং রাসাং ক্ষং ক্ষং ক্ষীং ক্ষীং হ্রং ভগবতি স্ত্রীঘোনসশ্চচপসঃ সঃ সঃ সঃ সঃ সঃ হর হর হর হর হর।। বঃ বঃ বঃ বঃ বঃ ঠঃ ঠঃ ঠঃ ঠঃ ঠঃ বঃ বঃ বঃ বঃ বঃ। মঃ মঃ মঃ মঃ মঃ বরবিহঙ্গানুজে...

রাতকাণা ও জ্বর নিবারণ যুপ

রাতকাণা ও জ্বর নিবারণ যুপঃ জম্বুফলং হরিদ্রা চ সর্পস্যেব তু কঞ্চু কং। সর্ব জ্বরানাং দুরোহয় হর্ত্তা রাত্রান্ধকস্য চ।।                                                 —গৌরী কাঞ্চলিকা তন্ত্রম্। জাম, হরিদ্রা এবং সাপের খোলস একসঙ্গে লইয়া জ্বরগ্রস্ত রোগীকে তাপ দিলে সর্বপ্রকার জ্বর আরোগ্য হয়।। এইভাবে চোখে তাপ দিলে রাতকানা রোগ আরোগ্য হয়। চোখে সাবধানে তাপ দিতে হয়।

তাগা বন্ধন

তাগা বন্ধনঃ ধুনিয়া ধুনিয়া তুমি উড়িয়া বেড়াও। আমাকে দেখিয়া তুমি সম্মুখে দাঁড়াও।। মনসার বরে বিষ না হাঁট উপরে। বিষহরির দিব্যি আমি কহিতেছি তোরে।। আয় বিষ আয়। ঘা মুখে আয়। কার আজ্ঞে? মা মনসার আজ্ঞে? কার আজ্ঞে? বিষহরি রাইয়ের আজ্ঞে।। সর্পে দংশন করা সঙ্গে সঙ্গে কিছুপাট বা পাটের দড়ি উক্ত মন্ত্রে...

সর্প দংশনস্থানের আকার ফল

সর্প দংশনস্থানের আকার ফলঃ চক্রাকৃতিশ্চ বা দংশঃ পক্কজম্বুফলাকৃতিঃ। সুনীলঃ শ্বেতরক্তো বা ত্রিদশোহপি ন জীবতি।। সর্প দংশনের স্থানটি যদি চাকার ন্যায়, পাকা জম্বুফলের মত, গাঢ় নীল, শ্বেববর্ণ বা শ্বেতরক্ত মিশ্রিত বর্ণ দেখায়, তাহলে সে ব্যক্তি বাঁচে না।

পাগলা কুকুরের কামড়ের দাওয়া

পাগলা কুকুরের কামড়ের দাওয়াঃ সাদা কবরির জট আধা ইঞ্চি পরিমাণ আড়াইটা গোল মরিচের সঙ্গে বাটিয়া খাওয়াইলে, কুকুরের বিষ কার্যকরী হইবে না। যখন কোন লোককে কুকুরে কামড়ায় তৎক্ষণাৎ অন্য একটি কুকুরের তিনটি লোম কলার ভিতরে ভরিয়া খাওয়াইলে বিষ কার্যকরী হইবে না। কুকুরে কামড় দেওয়ার সাথে সাথে লোহা পুড়িয়া ক্ষত স্থানে দাগ...

সাপের বিষনাশক আমল

সাপের বিষ নষ্ট করার ভিন্ন তদবীর একটি রুপার টাকা যোগার করতে হবে, যার এক পার্শ্বে রাজার ছবি থাকে অন্য পার্শ্বে প্রানী বা ফলমুলের ছবি থাকে, এবার যে পার্শ্বে রাজার ছবি আছে তার বিপরিত পার্শ্বে নিম্নক্ত আয়াত শরীফ বিশবার পাঠ করে দম করতঃ দংশিত স্থান চাকু ছুরির অগ্রভাগ দ্বারা রক্ত বের...

সাপের বিষ নষ্ট করার তদবীর

সাপের বিষ নষ্ট করার তদবীর যেখানে সাপে দংশন করেছে, সেখানে নিম্ন লিখিত আয়াত পাঠ করে সাতবার দম করবে, এতে খোদার রহমতে সাপের বিষ নষ্ট হয়ে যাবে। কালামঃ খুযহা, ওয়ালা তাখাফ, সানুয়ীদুহা সীরাতাহাল ঊলা।

যে কোন বিষাক্ত প্রাণীর দংশনের তদবীর

কোন বিষাক্ত প্রাণীর দংশিত স্থানের চতুর্দিকে আঙ্গুলী ঘুরাতে  ঘুরাইতে এক নিঃশ্বাসে সাতবার নিম্নোক্ত আয়াতটি পাঠ করিয়া দংশিত স্থানে ফু’ক দিলে আল্লাহর ফজলে বিষ নষ্ট হইয়া যাইবে। **ওয়া ইজা বাতাশ্ তুম বাতাশ্ তুম জাব্বারীনা।**

error: Content is protected !!